স্ত্রী সুনন্দার মৃত্যু, বিচারের মুখোমুখি শশী থারুর

আগের সংবাদ

বিনামূল্যে ইন্টারনেট সিকিউরিটি পাবেন যেভাবে

পরের সংবাদ

মহাসাগরে জাহাজ ডুবলে তার সম্পদের মালিক কে

প্রকাশিত হয়েছে: জুন ৬, ২০১৮ , ৮:৪৭ পূর্বাহ্ণ | আপডেট: জুন ৬, ২০১৮, ৮:৪৭ পূর্বাহ্ণ

সম্প্রতি একটি খবর প্রকাশিত হয়েছে যে, যুক্তরাষ্ট্রের সানজোসে এলাকায় সমুদ্রের নিচে একটি নিমজ্জিত জাহাজের সন্ধান মিলেছে। জানা গেছে, এটি একটি স্প্যানিশ জাহাজ। একটি ব্রিটিশ জাহাজের সঙ্গে সংঘর্ষে এটি ডুবে গিয়েছিল প্রায় ৩০০ বছর আগে। জাহাজটি দক্ষিণ আফ্রিকা থেকে বিপুল পরিমাণ স্বর্ণ, রৌপ্য, হীরা ছাড়াও নানারকম মহামূল্যবান সম্পদ নিয়ে স্পেনের রাজা পঞ্চম ফিলিপের কাছে যাচ্ছিল; কিন্তু পথিমধ্যে ডুবে যাওয়া সব সম্পদ পানিতে হারিয়ে যায়।
জাহাজটির সন্ধান পাবার খবরে বেশ আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছে। কারণ এতে বিপুল পরিমাণ সম্পদ আছে। কলম্বিয়া বলেছে, তারাই কার্টেজেনা উপকূলীয় এলাকায় সর্বপ্রথম জাহাজটির খোঁজ পেয়েছে। তাই এর সম্পদের অধিকার তাদের। দেশটির প্রেসিডেন্ট বলেছেন তারা উদ্ধার অভিযান শুরু করেছেন। এতে যে ঐতিহাসিক মূল্যের ধনরত্ন রয়েছে তা এক বিরল সংগ্রহ হবে।
ইতোমধ্যে একদল প্রত্নতত্ত্ববিদ রোবটের সাহায্যে ওই জাহাজের উপর গবেষণা শুরু করেছেন। তারা বলেছেন, জাহাজটিতে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলারের সম্পদ আছে। তাই এটা হয়তো বিশ্বের ইতিহাসের সবচে দামি জাহাজ ডুবি। এটি ছাড়াও আরো অনেক জাহাজ মূল্যবান সম্পদ নিয়ে সাগরে অবস্থান করছে।
কলম্বিয়া ছাড়াও আরো অনেক দেশ ডুবন্ত স্প্যানিশ জাহাজটির ব্যাপারে আগ্রহ দেখিয়েছে। তাই প্রশ্ন উঠেছে যদি এর সম্পদ উদ্ধার করা সম্ভব হয় তবে তার মালিকানা কে বা কারা পাবে। যুক্তরাষ্ট্রের ইউনিভার্সিটি অব সাউদাম্পটনের প্রত্নতত্ত্ব বিজ্ঞানী এবং আইন বিশেষজ্ঞ রবার্ট ম্যাকিনটোশ বলেছেন, এই ব্যাপারে একটি আন্তর্জাতিক আইন আছে। যদিও বিষয়টি খুব জটিল তারপরেও আইন অনুযায়ী সাগরে নিমজ্জিত জাহাজে প্রাপ্ত সম্পদ বণ্টন করা যেতে পারে।
তিনি আরো বলেন, আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী জাহাজের সম্পদের একটি অংশের দাবিদার তার আসল মালিক; কিন্তু যে দেশের সমুদ্রসীমানায় জাহাজটির খোঁজ পাওয়া গেছে সেই দেশ যদি ইচ্ছা করে তবে আসল মালিকের দাবি বাতিল করে দিতে পারে। এক্ষেত্রে দ্বি-পাক্ষিক সমঝোতা হবে। সমঝোতা না হলে যাদের সীমানায় এই সম্পদের খোঁজ মিলবে তারা এবং যারা সন্ধান পাবে এবং উদ্ধারকাজ চালাবে তাদের মধ্যে ভাগাভাগি হবে।
প্রত্নতত্ত্ববিদদের মতে, সন্ধান পাওয়া জাহাজটিতে প্রাপ্ত সম্পদের মূল্য কমপক্ষে ১৭ বিলিয়ন ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় দেড় লাখ কোটি টাকা) হবে। কলম্বিয়া ২০১৫ সালে এর সন্ধান পেলেও বিষয়টি দীর্ঘদিন গোপন রেখেছিল। এখন সবার কৌতূহল, জাহাজের আসল মালিক স্পেন এই সম্পদের কতটুকু পাবে কিংবা আদৌ পাবে কি না।-বিবিসি।